পরিষেবার জন্য চূড়ান্ত হল জিএসটি-র হার

0
59

arun-jaitley-650_650x400_41495191264নিউজ ডেস্ক :আগামী পয়লা জুলাই থেকে লাগু হচ্ছে জিএসটি। তার আগে বৈঠকে বসে করের হার চূড়ান্ত করল জিএসটি কাউন্সিল। জিএসটি চালু হলেও তাতে ছাড় পাবে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরিষেবা। অর্থাৎ এগুলির ওপর কর ধার্য হবে না। যাতায়াতের ক্ষেত্রে ৪টি আলাদা হারে এই কর ধার্য করা হবে। টেলিযোগাযোগ, বিমা, হোটেল ও রেস্তোঁরার ক্ষেত্রে কর বসবে যথাক্রমে ৫, ১২, ১৮ ও ২৮ শতাংশ করে।

অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানিয়েছেন, টেলিকম ও আর্থিক পরিষেবা ক্ষেত্রে কর বসবে ১৮ শতাংশ। যাতায়াত সংক্রান্ত পরিষেবায় কর ৫ শতাংশ। ওলা, উবের সহ অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সি পরিষেবায় অনেকেই ৬ শতাংশ কর দেয়। তাদের ক্ষেত্রেও এই ৫ শতাংশ করই প্রযোজ্য হবে। কর বসছে না নন এসি ট্রেন সফরে। এসির ক্ষেত্রে সেই ৫ শতাংশ। অর্থাৎ ভাড়া কমছে। মেট্রো, লোকাল ট্রেন ও হজযাত্রা সহ নানা তীর্থভ্রমণের ক্ষেত্রে জিএসটি প্রযোজ্য হবে না। বিমান সফরের ক্ষেত্রে ইকনমি ক্লাসে জিএসটি বসবে ৫ শতাংশ, বিজনেস ক্লাসে ১২ শতাংশ।

জেটলি জানিয়েছেন, নন এসি রেস্তোঁরায় খাবারের বিলের ওপর ১২ শতাংশ জিএসটি বসবে। এসি রেস্তোঁরা আর যেগুলির মদ সরবরাহের লাইসেন্স রয়েছে, সেগুলোর ওপর বসবে ১৮ শতাংশ কর। পাঁচতারা হোটেলগুলিকে দিতে হবে ২৮ শতাংশ জিএসটি। তবে যে রেস্তোঁরাগুলির বার্ষিক লাভ ৫০ লাখ বা তার কম, তারা ৫ শতাংশের বেশি কর দেবে না।

সস্তা হচ্ছে সিনেমার টিকিট। বিনোদন কর মিশে যাবে পরিষেবা করের সঙ্গে। সিনেমার ক্ষেত্রে জিএসটি বসবে ২৮ শতাংশ। একই হার জুয়া, বাজি রাখা আর ঘোড়দৌড়ের ক্ষেত্রেও। যে সব হোটেল ও লজের দিন প্রতি ভাড়া ১,০০০ টাকার কম, তারা জিএসটির আওতায় আসবে না। দিন প্রতি ১,০০০-২,০০০ টাকা ভাড়ার হোটেল-লজে ১২ শতাংশ জিএসটি বসবে। ২,৫০০-৫,০০০ টাকা ভাড়ার হোটেলে বসবে ১৮ শতাংশ। ৫,০০০ টাকার বেশি ভাড়া হলে জিএসটি বসবে ২৮ শতাংশ।

৩ জুন জিএসটি কাউন্সিলের আগামী বৈঠকে সোনা সহ মূল্যবান ধাতুর ওপর কর বসানো নিয়ে আলোচনা হবে। জেটলি জানিয়েছেন, যে সব ক্ষেত্রে করছাড়েও আওতায় আছে, জিএসটি চালু হওয়ার পরেও সিংহভাগ ক্ষেত্রেই সেই ছাড় পাবে তারা। লটারির ওপর কোনও কর বসবে না। ফ্লিপকার্ট, স্ন্যাপডিলের মত ই-কমার্স সংস্থাগুলিকে পণ্য সরবরাহকারীদের টাকা মেটানোর সময় ১ শতাংশ টিসিএস দিতে হবে।

মোবাইল ফোন, ফাউন্টেন পেনের কালি, টুথ পাউডার, ধূপকাঠি, ফিডিং বোতল, ব্রেইল পেপার, ছোটদের রং করার বই, ছাতা, পেনসিল কাটার কল, ট্র্যাক্টর, বাইসাইকেল, কনট্যাক্ট লেন্স, চশমার কাচ, বাসনপত্র, খেলার সামগ্রী, মাঝ ধরার ছিপ, চিরুনি, পেনসিল ও হাতে আঁকা ছবি জিএসটি জমানায় ১২ শতাংশ করের আওতায় আসবে। ১৮ শতাংশের আওতায় আসবে হেলমেট, এলপিজি স্টোভ, পরমাণু চুল্লি, ঘড়ি, সামরিক অস্ত্র, ইলেকট্রনিক খেলনা ও প্লাস্টিকের বোতাম।

সর্বাধিক ২৮ শতাংশ কর বসবে ঠাণ্ডা পানীয়, পারফিউম, আফটার শেভ লোশন, ডিওডোরান্ট, ফারের চামড়ার পোশাক, রেজার ব্লেড, গাড়ি, রিভলভার ও পিস্তলের ওপর।

 

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY